News Headline :
ইতিহাসের পাতায় এই প্রথমবার, সম্প্রচার হলো অমরনাথ ধামের আরতি, রইলো ভিডিও হু এর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিলো ট্রাম্প, সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করার মুখে আমেরিকা! “ভে’ঙে পড়েছেন করণ জোহার, সারাদিন কাঁদছেন তিনি ” – করণ জোহরকে নিয়ে বড় তথ্য ফাঁ’স করলেন করণের বন্ধু Big News- বাংলার সমস্ত কন্টেনমেন্ট জোনে চলবে টানা সাত দিনের কড়া লকডাউন ফের নিন্মচাপ, নদীয়া সহ পাঁচ জেলার আবহাওয়ার বড় আপডেট দিলো আবহাওয়া দপ্তর রাতভর ভারত-চিন সীমান্তে হুংকার ছাড়লো ভারতীয় বায়ুসেনার অ্যাপাচি হেলিকপ্টার, রইল ভিডিও এবছর কি হবে স্নাতক-স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা? স্পষ্ট না জানালেও ইঙ্গিত দিলেন শিক্ষামন্ত্রী ফের নিম্মচাপের ধা’ক্কা বাংলায়, হুগলি-নদীয়া সহ পাঁচ জেলায় ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা জানালো আবহাওয়া দপ্তর জিও থেকে গ্রাহক টানতে কম দামে দারুন প্ল্যান লঞ্চ করলো এয়ারটেল, এবার পাবেন আনলিমিটেড কল সহ ডেটা করোনা নিয়ে বড় ঘোষণা সৌরভের, করোনা নিয়ে আশঙ্কার কথা শোনালেন সৌরভ গাঙ্গুলি
জাগ্রত এই শনিমন্দিরের শনিদেব কাউকে ফেরায় না, সকলের মনোস্কামনা পূরণ করেন বাবা

জাগ্রত এই শনিমন্দিরের শনিদেব কাউকে ফেরায় না, সকলের মনোস্কামনা পূরণ করেন বাবা

ভারতে এমন অনেক প্রাচীন মন্দির এখনও আছে যেগুলি খুব বিখ্যাত একমাত্র জাগ্রত দেবতার কারণেই। গ্বালিয়র থেকে ১৮ কিলোমিটার দূরে মুরেনা জেলার এন্তিতে একটি শনি মন্দির রয়েছে যেটা ত্রেতা যুগে তৈরী বলে মনে করা হয়। এই একটি কারণেই এই শনি মন্দিরটি সারা ভারত জুড়ে বিখ্যাত।

এই মন্দিরে যদি পুজো করা যায় তাহলে ভালো ফল পাওয়া যায় বলেই ধারণা ভক্তদের।রাজা বিক্রমাদিত্য শনিদেবের এই মন্দিরের প্রথম নির্মাণকার্য শুরু করেছিলেন। তার পরে সিন্ধিয়া শাসকেরা ক্ষমতায় এসে এই মন্দিরের সংস্কার করেন। ১৮০৮ সালে গ্বালিয়রের তৎকালীন মহারাজা দৌলতরাও সিন্ধিয়া এর দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন।

আরও পড়ুন-সরস্বতী পুজার প্রদীপ থেকে শাড়ীতে আগুন , প্রথমবার অঞ্জলি দিতে গিয়ে মৃত্যু খুদের

আরও পড়ুন-সোনার দামে ফের বড়সড় পরিবর্তন, মাথায় হাত মধ্যবিত্তের

১৯৪৫ সালে দেবস্থান বোর্ডের দায়িত্বে গ্রহন করে এই মন্দির।ভক্তরা এখনও বিশ্বাস করেন যে, এই মন্দিরের শনি প্রতিমাই হচ্ছে শনিদেবের আসল রূপ। শনির প্রকোপের হাত থেকে বাঁচতে হাজার ভক্ত এখনও এখানে এসে পুজো করেন। তাঁদের ধারণা শনিদেবের পুজো করলে তিনি সবার মনোবাঞ্ছা পূর্ণ করেন।

আরও পড়ুন-শুক্রের রাশির এক বড়োসড়ো পরিবর্তন বুধাদিত্য যোগের ফলে,তিন রাশি একটু সা-বধা-নে থাকুন, দুই রাশি হবে লাভবান

আরও পড়ুন-শনিবার পাঁচ খাবার কেও দিলেও খাবেন না, গ্রহরাজের কুদৃষ্টিতে পড়বেন

জানা গেছে এখানে পুজো করার পর ভক্তরা তাঁদের কাপড়, জুতো, চপ্পল ইত্যাদি ছেড়ে রেখে যান। এর ফলে নাকি পাপ ও দারিদ্র থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।হাজার বছর আগের তৈরি এই মন্দিরে এখনও বিদেশিদেরা আসেন। শনিদেবের শক্তি এই মন্দিরের মধ্যেই রয়েছে বলে সবাই মনে করেন। তাঁর কাছে এসে যদি নিজের সুখ-দুঃখের কথা বলা যায় তাহলে নাকি তিনি সব লাঘব করে দেন বলেই বিশ্বাস ভক্তদের।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply




© All rights reserved © 2019 bdkantho24.com